সরিষাবাড়ীতে নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতার ফলাফলকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ মিছিল

0
53

সোলায়মান হোসেন হরেক :

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে আজ শনিবার সন্ধ্যায় নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতার ফলাফলকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার ঐতিহ্যবাহী রেলিব্রিজ সংলগ্ন ঝিনাই নদীতে ঢাকা কাস্টমস এসোসিয়েশনের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শাহজাহান গত শুক্রবার দুপুরে নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন। গতকাল শনিবার ছিল চূড়ান্ত প্রতিযোগিতার দিন।

কামরাবাদ ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান এলিনের সভাপতিত্বে চূড়ান্ত নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান হেলাল। এ সময় অন্যদের মধ্যে কামরাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান মুনসর আলী খান, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আলহাজ আব্দুস সালাম জিএস, উপ-দপ্তর সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শুক্রবারের সেমিফাইনালে অংশ নিয়ে বড়বাড়ীয়া-ডিগ্রী পাছবাড়ী গ্রামের সোনার বাংলা ও ধারাবর্ষা গ্রামের দিগন্ত নামের নৌকা চূড়ান্ত পর্বে অংশ গ্রহণের যোগ্যতা অর্জন করে। গতকাল শনিবারের চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় পাশ্ববর্তী মেলান্দহ উপজেলার ময়ূরপক্ষী নামে আরো একটি নৌকাকে অংশ গ্রহণ করার সুযোগ করে দেয়া হয়। প্রতিযোগিতায় মেলান্দহের ময়ূরপক্ষীকে বিজয়ী হিসেব ঘোষণা দেয়া হয়। এ নিয়ে ওই দুই নৌকার সমর্থকদের উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে তারা নৌকাবাইচের ফলাফল নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি পৌরসভার শিমলাবাজার থেকে শুরু হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে থানা গেটে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে অংশ নেয়া বিক্ষোভকারীরা নৌকাবাইচের এ ফলাফল মানেনা বলে শ্লোগান দেয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা যুবলীগের প্রচার সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজু বলেন, নিয়ম না মেনে ময়ূরপক্ষী নৌকাকে বাইচে অংশ গ্রহনের সুযোগ করে দেয়া হয়। এতে ওই দুই নৌকার সমর্থকদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। ময়ুরপক্ষীকে বিজয়ী ঘোষনা করায় সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে সন্ধ্যায় তারা বিক্ষোভ মিছিল বের করে।

এ ব্যাপারে জানতে চেয়ে নৌকা বাইচ প্রতিযোগীতার সভাপতি আনিছুর রহমান এলিনের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।