এই সময়ে নাট্যব্যক্তিত্ব সাংবাদিক সাজু আহমেদ

0
4
নিজস্ব প্রতিবেদক: বিনোদন প্রতিবেদক বিশিষ্ট অভিনেতা, নাট্যকার, নির্দেশক, সংগঠক ও সাংবাদিক সাজু আহমেদ এর জন্মদিন গত ১৯ মার্চ শুক্রবার। আপাদমস্তক সংস্কৃতিকর্মী সাজু আহমেদ এর জন্ম ১৯৭৬ সালের ১৯ মার্চ, উত্তরবংগের বগুড়া জেলার, সোনাতলা থানার তেকানী চুকাই নগর ইউনিয়নের মহেশপাড়া গ্রামে। বাবা ফিরোজ উদদীন আহমেদ, মাতা প্রয়াত রাবেয়া বেগম। ৪ ভাই ২ বোনের মধ্যে দ্বিতীয় সাজু আহমেদ। তার ছোট ভাই ও এক বোনও প্রয়াত হয়েছেন।
ছোটবেলা থেকেই সংস্কৃতি অঙ্গনে যুক্ত সাজু আহমেদ। দীর্ঘ দিনের সাংস্কৃতিক অভিজ্ঞতায় ২০০৯ সালে ঢাকায় গড়ে তোলেন ঢাকা মৌলিক নাট্যদল নামের একটি নাট্য সংগঠন। সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তিনি। এছাড়া মৌলিক মিডিয়া এ্যান্ড কমিউনিকেশন নামে একটি ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান তিনি। নাটক রচনা, নিদের্শনা এবং অভিনয়ের পাশাপাশি লেখক হিসেবেও পরিচিতি আছে তার। ‘স্মৃতি কেন কাঁদায়’ এবং ‘মহেশ পাড়ার সেই ছেলেটি’ নামে সাজু আহমেদের দুটি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশ হয়েছে। চলতি গ্রন্থমেলায় একটি উপন্যাস একটি গল্পগ্রন্থ প্রকাশ পেতে যাচ্ছে তার। এছাড়া বেশকিছু মঞ্চনাটক ও টিভি নাটকও রচনা করেছেন সাজু আহমেদ। সাংস্কৃতিক এবং সাংবাদিক হিসেবে বনার্ঢ্য ক্যারিয়ারের স্বীকৃতিস্বরুপ ডজনখানে সম্মাননা পেয়েছেন সাজু আহমেদ। এর মধ্যে রয়েছে আমরা মানবতার গান গাই সংগঠনের ‘মানবতা এ্যাওয়ার্ড-২০২১’, ‘সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ও আলী যাকের স্মৃতি পদক-২০২১’, ‘ছায়ালোক মিডিয়া এ্যাওয়ার্ড-২০২০’, ‘বগুড়া আজিজুল হক কলেজ থিয়েটার সংবর্ধনা সম্মাননা-২০১৯’, ‘দেশ অপেরা পদক’, ‘জাগরণী থিয়েটার সম্মাননা’, ‘নয়নমনি কালচারার অ্যাওয়ার্ড’, ‘সাকো টেলিফিল্ম অ্যাওয়ার্ড’, ‘বঙ্গভূমি সাহিত্য পদক’, ‘আমরা কুড়ি অ্যাওয়ার্ড’, ‘মিরপুর ক্লাব অ্যাওয়ার্ড’, ‘চ্যানেল-২৬ বিশেষ সম্মানা’, ‘বৈশাখী টিভি সম্মাননা-২০২০’ অন্যতম।

সাংস্কৃতিক প্রতিভা সাজু আহমেদ এর নিজের প্রতিষ্ঠিত সংগঠন ঢাকা মৌলিক নাট্যদলের একাধিক প্রযোজনার কাজ নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। তার নির্দেশনায় একটি মঞ্চ নাটক, একটি পথনাটক এবং একটি মনোড্রামা অচিরেই মঞ্চে আসছে বলে জানিয়েছেন তিনি। এছাড়াও ঈদের একাধিক খন্ড নাটক ও ধারাবাহিক নাটকের অভিনয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। পাশাপাশি নিজের ইউটিউব চ্যানেল ‘মৌলিক টিভি’র জন্য শর্টফিল্মসহ একাধিক কন্টেন্ট নির্মাণ করছেন তিনি। নিজের ব্যস্ততা প্রসঙ্গে সাজু আহমেদ জানান, সাংবাদিকতার পাশাপাশি নিজে থিয়েটার সংগঠন ঢাকা মৌলিক নাট্যদল নিয়েই মূল ব্যস্ততা তার। এর বাইরে টিভি নাটকে নিয়মিতভাবে অভিনয় করছেন।
সাজু-আহমেদএদিকে সাজু আহমেদ অভিনীত মির্জা সাখাওয়াৎ হোসেন পরিচালিত চলচ্চিত্র ‘একজন মহান পিতা’ সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে। চলচ্চিত্রে তিনি রাজাকারের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এ ছাড়া তারেক মাহমুদ পরিচালিত ‘চটপটি’ চলচ্চিত্রটিও মুক্তির অপেক্ষায়। সাজু আহমেদ নাটকগুলোর মধ্যে রয়েছে সজল আলী কাইজেন পরিচালিত একক নাটক ‘ক্রেজি হাজব্যান্ড’, ‘হ্যাপি কাপল’, সীমান্ত সজল পরিচালিত ‘ওগো মা’, ‘বর্ণমালার মিছিল’, মেহেদি হাসান হৃদয়ের ‘রসের হাড়ি’, জি এম সৈকতের পরিচালনায়এটিএনবাংলার ‘ডিবি’, এসএম শাহীন পরিচালিত বগুড়ার আঞ্চলিক ভাষার নাটক ‘সোনাভান’ এবং এইচ আর অনিকের টেলিফিল্ম ‘অপেক্ষা সুর্যোদয়ের’, সোহেল রানা বয়াতির ‘সেলাই জীবন’, রবিউল হাসান সোহেলের ‘অপরাধী’, হানিফ পালোয়ানের ‘কুমারিত্ব বিসর্জন’সহ বেশ কিছু স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। এছাড়া বগুড়ার সোনাতলা থিয়েটারের হয়ে মঞ্চ নাটক ‘সুবচন নির্বাসনে’, পথ নাটক ‘ফেরারি নিশান’, ‘পাথর’, ‘গিরিগিটি’, ‘পাবলিক সার্ভেন্ট’, ‘হয়তো নয়তো’, ‘মড়া’, ‘হল্লাবোল’, আযিযুল হক কলেজ থিয়েটারের প্রযোজনা ‘সেনাপতি’ প্রভৃতি নাটকে অভিনয় করেছেন।
টিভি নাটকে অভিনয় করলেও মঞ্চকেই বেশি প্রাধানা দেন। বগুড়ার পাশাপাশি ঢাকায় বেশ কিছু নাটকে নির্দেশনার পাশাপাশি অভিনয় করেছেন সাজু আহমেদ। এর মধ্যে রয়েছে ভিউ থিয়েটারের ‘নাপতালি’, ঢাকা মৌলিক নাট্যদলের ‘পাথর’, ‘এই পিরিতি সেই পিরিতি নয়’, ‘বৃত্তে বিপ্রতীপ’, ‘অংকুর’, ‘সুবচন নির্বাসনে’, ‘দেশ আমার মাটি আমার’ প্রভৃতি। এছাড়া তার নির্দেশনায় ‘মহাকবির সমস্যা’ এবং ‘আমি শেখ মুজিবুর রহমান’ নামে আরও দুটি নাটক মঞ্চে আনছে ঢাকা মৌলিক নাট্যদল।
সাজু আহমেদ বলেন, মঞ্চে ২০টি নাটক নির্দেশনা দিয়েছি। আমি নির্দেশনাটা খুবই উপভোগ করি।
সাজু আহমেদের গড়ে তোলা মৌলিক মিডিয়া এন্ড কমিউনিকেশনের ব্যানারে দেশের প্রচার বিমুখ সাংস্কৃতিক প্রতিভাকে সম্মাননা প্রদান এবং কাভারেজ দেয়ার মাধ্যমে তাদেরকে উৎসাহিত করেন। এই প্রতিষ্ঠানের ব্যানারে দেশের শতাধিক গুণি সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও সমাজসেবককে সম্মাননা দিয়েছেন তিনি। এছাড়া তার হাতে তৈরি হয়েছে শতাধিক সাংবাদিক। তার দীক্ষা নেয়া শতাধিক শিল্পী বিভিন্ন মিডিয়ায় কর্মরতম। এছাড়া সাংবাদিক হিসেবে হাজারো শিল্পীকে কাভারেজ দেয়ার মাধ্যমে বিভিন্ন গণমাধ্যমে তুলে ধরেছেন সাজু আহমেদ।

নিজের ক্যারিয়ার প্রসঙ্গে সাজু আহমেদ বলেন, ছোটবেলা থেকে এক ধরণের অবহেলার পরিবেশে বেড়ে উঠেছি। তাই নিজেকে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ করেছি, সংস্কৃতির সব অঙ্গণে বিচরণ করব। সে লক্ষ্যেই নিজেকে প্রতিনিয়ত তৈরি করছি। এ জন্য ঢাকা মৌলিক নাট্যদল এবং মৌলিক কমিউনিকেশনের বিভিন্ন কর্মকান্ডের মাধ্যমে নিজেকে এগিয়ে নিচ্ছি। সমাজ, দেশ এবং মানুষের জন্য কিছু করতে চাই। সব সময় মানুষের পাশেই থাকতে চাই। এজন্য সবার কাছে দোয়া চাই।