সুবিদ আলী ভূইয়া এমপি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করেন: মোঃ মজিবুর রহমান মজিব

0
344

লিটন সরকার বাদল, মেঘনা,কুমিল্লা:

কুমিল্লা জেলার মেঘনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অতন্দ্র প্রহরী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের সৈনিক, দাউদকান্দি -মেঘনা আসনের সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অব.) মোঃ সুবিদ আলী ভূইয়া’র আস্থাভাজন প্রিয় মানুষ মোঃ মজিবুর রহমান মজিব বলেন, মেজর জেনারেল ( অব.) মোঃ সুবিদ আলী ভূইয়া এমপি মহোদয় বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করেন।

তিনি একজন আদর্শবান বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং অসহায় গরীব মানুষের পরম বন্ধু। দাউদকান্দি – মেঘনা উপজেলায় যে উন্নয়ন তিনি সৃষ্টি করেছেন, তার ধারাবাহিকতায় আজ দাউদকান্দি- মেঘনা বাসী সেই উন্নয়নের সুফল ভোগ করছেন।

স্বাধীনতার পর দাউদকান্দি- মেঘনা আসনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করে , তিন তিনবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এই আসনটি উপহার দেন। দাউদকান্দি – মেঘনা উপজেলা আওয়ামী লীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগ,শ্রমিক লীগ,মহিলা লীগসহ সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীদের সুসংগঠিত করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নমুলক কাজে সহায়তা করে যাচ্ছেন।

মেঘনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোঃ মজিবুর রহমান মজিব বলেন, আওয়ামী লীগের শক্তি জনগণ। বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভালবেশে নি:স্বার্থে যারা রাজনীতি করে তারাই আওয়ামী লীগের প্রান।

সুবিধাবাদীরা দু:সময়ে আওয়ামী লীগের পাশে থাকবে না। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার পরে সুবিধাবাদীরা বঙ্গবন্ধুকে দেখতে আসেনি। বঙ্গবন্ধকে হত্যার ঘটনার সময় সাবেক সেনা প্রধান কে এম সফিউল্লাহ এবং জিয়াউর রহমান এগিয়ে আসেনি। তারা খন্দকার মুসতাকের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছিল।

তিনি বলেন, দেশ স্বাধীনের পরে বঙ্গবন্ধু দেশ গড়ার লক্ষে যখন কাজ শুরু করলেন তখন অতিবিপ্লবীরা জাসদ সৃষ্টি করে বৈজ্ঞানিক সমাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য বঙ্গবন্ধুর বিরোধীতা করে। তারা দলকে বিভক্ত করে। তারা আসলে বঙ্গবন্ধু এবং আওয়ামী লীগের ভালো চায়নি। তাদের কারণে দেশ ৫০ বছর পিছিয়ে গেছে।

আসুন বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধরা অব্যাহত রাখতে মেজর জেনারেল (অব.) মোঃ সুবিদ আলী হাত কে শক্তিশালী করি।