সরিষাবাড়ীতে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে হয়রানীর অভিযোগ

0
200


সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি :
জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেলি আক্তারের বিরুদ্ধে হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে এলাকাবাসী।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেলী আক্তার নানান সময়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী, প্রতারনা, ভয়ভীতি দেখানো ও চিৎকার চেঁচামেচি করিয়া মানুষকে জিম্মি করে নানাবিধ সুবিধা আদায় করিয়া নেন। তিনি ৫ম শ্রেনী পাশ হলেও তার হলফনামায় ৮ম শ্রেণী উল্ল্যেখ করেন। উপজেলা নির্বাচন অফিসে জাল আয়কর সনদ উপস্থাপন করে নির্বাচনে অংশ নেন। উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের দায়িত্ব গ্রহনের পর থেকে এলাকার অনেককে ‘জমি আছে বাড়ী নেই’ খাত থেকে বাড়ী বানিয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে অনেকের নিকট থেকে টাকা গ্রহন করেন। তিনি শিশুকার্ড ও বয়স্কভাতা কার্ড পাইয়ে দেয়ার নামেও টাকা আদায় করেন। তার গ্রামের নিরীহ মানুষকে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করাসহ মানসিকভাবে নির্যাতন করেন। তিনি তার নির্বাচনী খরচ মেটাতে জমি বিক্রি করলেও খরিদদারকে আজো সে জমির দখল বুঝিয়ে দেননি। উপরোক্ত এসব অভিযোগ তুলে মোজাফফর আলী নামে এক ব্যক্তি গত ২১ এপ্রিল বাংলাদেশ দুর্ণীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেলী আক্তার বলেন, তার পুকুরের মাছ চুরি করতে গিয়ে মোজাফফর আলীর লোকজন ধরা পড়ে। সেটা আড়াল করতেই তারা অভিযোগ দায়ের করেছে। আমাদের নামে কোন বরাদ্ধ নেই , তাই মানুষের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার প্রশ্নই আসে না। আমার ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্যই এসব করা হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিহাব উদ্দিন আহমদ বলেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে জনগনকে হয়রানির অভিযোগ এমন একটি পত্র œসামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে থেকে সংগ্রহ করেছি আমি। অফিসের ডাক ফাইলে দেখতে হবে কেউ দিয়েছে কি না।