সরিষাবাড়ীতে ধর্ষণের শিকার প্রতিবন্ধী তিনমাসের অন্তঃসত্ত্বা

0
236

নিজস্ব প্রতিবেদক, সরিষাবাড়ী

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে প্রতিবেশী বখাটের ধর্ষণে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরী (১৪) তিনমাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ায় অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গতকাল ধর্ষিতার পরিবার ধর্ষক বিশু মিয়ার (৩০) বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্য়াতন ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেছেন। সরিষাবাড়ী উপজেলার মহাদান ইউনিয়নের বিলবালিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। এদিকে ধর্ষকের পরিবার মামলা প্রত্যাহার ও কিশোরীর গর্ভের আলামত নষ্টের জন্য ভয়ভীতি দেখাচ্ছে।
মামলা ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বিলবালিয়া গ্রামের দরিদ্র পরিবারের বাক প্রতিবন্ধী ওই কিশোরীর বাবা-মা রাজধানীর গার্মেন্ট কারখানায় কাজ করেন। শৈশব থেকে সে গ্রামের বাড়িতে দাদির কাছে থাকে। গত ৫ আগস্ট দুপুরে ওই কিশোরীকে বাড়িতে রেখে তার দাদি সাংসারিক কাজে উপজেলা সদরে যান। এ সুযোগে প্রতিবেশী ছায়ের ওরফে বানেছ ফকিরের বখাটে ছেলে দুই সন্তানের জনক বিশু মিয়া ওই বাড়িতে ঢুকে কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর গ্রাম্য মাতব্বরদের কাছে জানালে সে কিশোরীকে বিয়ে করবে বলে প্রলোভন দেয় ও কালক্ষেপন করতে থাকে। সে একই আশ্বাসে তাকে আরো কয়েকবার ধর্ষণ করে।
ধর্ষিতার দাদি বলেন, তার নাতিনের শারীরিক গঠনে সন্দেহ হলে গত শনিবার (৭ নভেম্বর) তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স রোডের সততা ডায়াগনোস্টিক সেন্টারে ডাক্তারী পরীক্ষা করানো হয়। পরীক্ষার রিপোর্টে দেখা যায় যে, প্রতিবন্ধী কিশোরী তিনমাসের গর্ভবর্তী। পরে তিনি বাদি হয়ে মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) জামালপুর নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল-২ আদালতে ধর্ষক বিশু মিয়ার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে জামালপুর পিবিআই পুলিশকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।
মামলার বাদি অভিযোগ করেন, মামলার পর থেকে তাদেরকে ধর্ষক নানা ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। মামলা প্রত্যাহার ও গর্ভের আলামত নষ্টের জন্য চাপপ্রয়োগ করছে।