সরিষাবাড়ীতে চাঁদার দাবিতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা মারধর আহত ৫ প্রতিবাদে ব্যবসায়ীদের ধর্মঘট

0
252

সরিষাবাড়ী প্রতিনিধি : জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে চাঁদার দাবিতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ও মারধর করেছে যুবলীগ নামধারী সন্ত্রাসীরা। এতে অন্তত ৫ জন ব্যবসায়ী আহত হয়েছেন। এর প্রতিবাদে ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার শাস্তির দাবিতে অনিদিষ্টকালের জন্য ধর্মঘট ঘোষনা করেছে ব্যবসায়ীরা। শুক্রবার উপজেলার ডোয়াইল ইউনিয়নের চাপারকোনা বাজারে এ ঘটনা ঘটে। ব্যবসায়ী হারুন অর-রশিদ বাদি হয়ে চাঁদাবাজ সন্ত্রাসী মামুন মিয়াকে প্রধান আসামী করে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।
লিখিত অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার ডোয়াইল ইউনিয়নের চাপারকোনা গ্রামের মৃত আইন মাষ্টারের ছেলে উপজেলা যুবলীগ সদস্য মামুন মিয়া ও ইউনিয়র ৪নং ওর্য়াড যুবলীগ সহ-সভাপতি শাহীন মিয়ার নেতৃত্বে চাপারকোনা বাজারে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে দীর্ঘদিন ধরে চাঁদা আদায় করে আসছে। তাদের চাঁদা না দেয়ায় ও চাঁদা দিতে দেরি হলেই ব্যবসায়ীদের ওপর হামলা এবং মারধর চালিয়ে আসছে চাঁদাবাজ যুবলীগ সন্ত্রাসীরা। এর মধ্যে বৃহস্পতিবার বিকালে ডেকোরেটর ব্যবসায়ী সুজন ঠাকুরের কাছে ৩ হাজার টাকা দাবি করে যুবলীগ সন্ত্রাসী মামুন মিয়া ও শাহীন মিয়া। এ চাঁদা দিতে দেরি হওয়ায় তার ওপর হামলা চালিয়ে ব্যাপক মারধর করে। পরে আহত অবস্থায় সুজন ঠাকুর টাকা সংগ্রহ করে দিলে সন্ত্রাসীরা তাকে ছেড়ে দেয়। এরপর চা ব্যবসায়ী আব্দুল বারি, মুদি দোকানি মোস্তফা,সাহজাহানসহ ৪-৫ জনের কাছে চাঁদার দাবিতে মারধর করে ওই সন্ত্রাসীরা। চাপারকোনা বাজার চাদাঁ মুক্ত দাবি ও সন্ত্রাসীদের শাস্তি, গ্রেফতারের দাবিতে শুক্রবার থেকে অনিদিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ঘোষনা দিয়েছে বাজারের ব্যবসায়ীরা। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী হারুন অর রশিদ বাদি হয়ে চাঁদাবাজ মামুন মিয়া ও শাহীনের বিরুদ্ধে থানায় শুক্রবার অভিযোগ দায়ের করেছেন।
উপজেলা যুবলীগের সভাপতি একে এম আশরাফুল ইসলাম জানান, মামুন মিয়া উপজেলা যুবলীগের একজন সদস্য। তবে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে লিপ্ত হলে তা কখনো দল মেনে নিবে না। দায় তারই বহন করতে হবে।
থানার অফিসার ইনচার্জ আবু মো.ফজলুল করিম বলেন, থানায় অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টির তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।