নীলা হোসেন’র কবিতা।

0
100

বনফুল

 

 

বাগানে বিভৎস গন্ধ, চলো ফিরে যাই
চন্দ্রালোক মহিমায় যেখানে বিষাদী ইন্দ্রজালে
তন্ময় তিথি সরোবরে ডুব দিয়ে রয়—-অনন্ত

বয়স তো অনেক হলো, পূরবী রাগে
বাসন্তী ধূপছায়া কোথা, নিরলস প্রচেষ্টা
সব ব্যর্থ, নাতিশীতোষ্ণ কামনার রশ্মি — পড়ন্ত।

রূপসী মুখের ভাঁজে ঝরে পরে বয়সী ছাপ
ভ্রমর গুঞ্জনে কুঞ্জবনে ফোটে না বনফুল
নদী গর্ভে জোয়ার ভাটা শিলার ন্যায়—প্রশান্ত।

বাগানে বিভৎস গন্ধ, চলো ফিরে যাই
সুঘ্রাণ বনফুলে প্রজাপতির নেই মিলন
মৌন অরণ্যে উলঙ্গ বৃক্ষের যৌবন— ভারাক্রান্ত।।

তবুও তোমাকেই করি স্মরণ হে বনফুল বন্দনা
এককালে তোমার ঘ্রাণে কতো প্রেমিক আকুল
তোমার নিঃসৃত সুবাস -এ অরণ্যে প্রবাদতুল্য।।