নাটোরে প্রকৌশলীকে মারধরের ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবি আইইবি’র

0
140

ডেইলিনিউসান ডেস্কঃ নাটোর জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের (বাপাউবোকে) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আবু রায়হানকে মারধরের সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি)।

পাশাপাশি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে আইইবি। মঙ্গলবার (২৫ মে) আইইবির সম্মানী সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মো. শাহাদাৎ হোসেন (শীবলু) পিইঞ্জ. এক বিবৃতিতে এই দাবি জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘নাটোর জেলার সিংড়া পৌরসভা এলাকায় আত্রাই ও নাগর নদীর ভাংগন হতে রক্ষা (১ম সংশোধিত)’ প্রকল্পের আওতায় অফিস ভবন ও পরিদর্শন বাংলো মেরামত ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজে শিডিউল মোতাবেক সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে মালামাল ব্যবহারে নির্দেশ দেয়ায় সোমবার (২৪ মে) নাটোর জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আবু রায়হানকে ঠিকাদারের প্রতিনিধি মো. নাফিউল ইসলাম অন্তর ও তার সঙ্গীরা তাঁকে মারধর করে। পরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা এবং কর্মচারিরা তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। এ ঘটনায় প্রকৌশলী মো. আবু রায়হান নাটোর থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এই ঘটনার সাথে জড়িত মো. নাফিউল ইসলাম অন্তরসহ জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, ইতিমধ্যে এ ঘটনায় মাঠ পর্যায়ের অন্যান্য প্রকৌশলীদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। তাই আশা করি সংশ্লিষ্ট সকলে এ ব্যাপারে তড়িৎ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

বিবৃতিতে আইইবির সম্মানী সাধারণ সম্পাদক বলেন, মহামারি করোনা ভাইরাসের সময়ও জীবন বাজি রেখে প্রকৌশলীরা দেশের উন্নয়নে তাদের মেধাশ্রম দিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে প্রকৌশলীরা কাজ করছেন। কিন্তু আমাদের প্রকৌশলীরা তাদের নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে আজ নিরাপদ নয়। প্রকৌশলীরা যখনই তাদের দায়িত্ব ভালোভাবে পালন করতে যান তখনই তাদের বাঁধা দেয়া হয়। অনেক ক্ষেত্রে প্রকৌশলীরা শারীরিক ভাবে লাঞ্ছনার শিকার হচ্ছেন। কিন্তু এভাবে চলতে থাকলে প্রকৌশলীরা দেশের উন্নয়ন কার্যক্রম সঠিক ভাবে চালাতে পারবে না যা দেশের উন্নয়ন কার্যক্রমকে বাঁধাগ্রস্থ করবে।