নরসিংদীতে ছিনতাইকারী চিনে ফেলায় কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা, আহত -১

0
222

মোঃ মাসুম ভূইয়া, বেলাব, নরসিংদী

নরসিংদীর বেলাবতে ছিনতাই করার সময় ছিনতাইকারীকে চিনে ফেলায় দুই কিশোরকে রাতভর নির্যাতনের পর মোঃ ইমন মিয়া (১২) এক জনকে লাহার রড ও বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে ছিনতাইকারীরা। অপর কিশোর মুস্তাকিন কে গুরুতর আহত করেছে । এ ঘটনায় নিহতের মামা শাহ আলম বাদী হয়ে বেলাব থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার নারায়নপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে। নিহত কিশোর উপজেলার কুকুরমারা গ্রামের মৃত কাজল মিয়ার ছেলে। শৈশবে ইমনের বাবা মারা যাওয়ায় ইমন একই ইউনিয়নের পাতিলাধোয়া গ্রামে নানা চাঁন বাড়ির বাড়িতে থাকতো।
নিহত ইমন মিয়ার পরিবার জানায়,গত শুক্রবার রাত ১০ টায় নিহত ইমন মিয়া তার আরেক বন্ধু পাতিলাধোয়া গ্রামের হুমায়ুনের ছেলে মোস্তাকিনকে নিয়ে নারায়নপুর বাজার হতে বাড়িতে আসার পথে গোবিন্দপুর শাহপাঁড়া গ্রামে পৌছলে গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত খোকন মিয়া ছেলে বখাটে সালাউদ্দীন,অহিদ মিয়ার ছেলে আলামিন,আমিন চাঁনের ছেলে মোঃ হৃদয়,গোলাপ মিয়ার ছেলে সাত্তারসহ কয়েকজন বখাটে তাদের গতিরোধ করে একটি মোবাইল ফোন ও নগদ দুই হাজার দুইশত টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এসময় নিহত ইমন তাদেরকে চিনে ফেলার কথা জানালে বখাটে সালাউদ্দীন ও তার বখাটে বন্ধুরা মিলে ডাকাত অপবাদ দিয়ে কিশোর ইমন ও মোস্তাকিনকে হাত পা বেঁধে লোহার রড ও বাঁশের লাঠি দিয়ে এলোপাথারী পিটিয়ে পা ভেঙ্গে ফেলে। এসময় বখাটেরা হাতপ্লাস দিয়ে নিহত ইমনের হাতের আঙ্গলের নোখ তুলে ফেলে। পরদিন শনিবার সকালে খবর পেয়ে আহত কিশোর মোস্তাকিনের বাবা হুমায়ুন দুই কিশোরকে উদ্ধার করে বেলাব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসে। পরে অবস্থার অবনতি হলে কিশোর ইমনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে গতকাল রবিবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় কিশোর ইমনের মৃত্যু হয়।
মামলার বাদী ও নিহত ইমনের মামা মোঃ শাহআলম বলেন,নারায়নপুর বাজার থেকে বাড়িতে আসার পথে ছিনতাই করার সময় গোবিন্দপুর গ্রামের ছিনতাইকারী ও বখাটে সালাউদ্দীন তার বন্ধুদের চিনে ফেলায় তারা আমার ভাগিনা ইমন সহ তার বন্ধু মোস্তাকিনকে নির্মম নির্যাতন করে আহত করে। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইমনের মৃত্যু হয়। আমি এর সুষ্ঠ বিচার চাই। এলাকাবাসীরা বলেন, নিরপরাধ ব্যক্তিরা মিথ্যা মামলার হয়রানির শিকার যেন না হয় এবং প্রকৃত অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে সবোর্”চ শাস্তির দাবী জানান ।
বেলাব থানার ওসি মোঃ সাফায়েত হেসেন পলাশ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীদের আটক করার চেষ্টা চলছে।