দুদকের চার্জশিট দাখিলের 12 বছর পর আদালতে চার্জ গঠন

0
249

স্টাফ রিপোর্টার
পটুয়াখালী স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক আবু জাফর মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম আজ 25 অক্টোবর 2020 বরগুনা 2 আসনের সাবেক বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মনির বিরুদ্ধে ত্রাণের টিন আত্মসাতের ঘটনায় দুদকের দায়েরকৃত মামলায় চার্জশিট দাখিলের দীর্ঘ 12 বছর পর চার্জ গঠন করেন।

জানা গেছে, গত বিএনপি সরকারের আমলে 25 আগস্ট 2004 থেকে 28 মার্চ 2006 এর মধ্যে উক্ত সংসদ সদস্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দকৃত ঢেউটিন তৎকালীন নীতিমালার নির্দেশ ভঙ্গ করিয়া স্বীয় ক্ষমতার অপব্যবহার পূর্বক তাহার পিতা
মোজাহার উদ্দিন কলেজের নামে তৎকালীন প্রভাষক দীপেন কুমার বিশ্বাসের উপর চাপ প্রয়োগ করিয়া 87 বান্ডেল ঢেউটিন প্রাপ্তিস্বীকার রেজিস্ট্রিতে জোরপূর্বক স্বাক্ষর করাইয়া উহার মধ্য হইতে 50 বান্ডেল টিন তৎকালীন বাজার মূল্য 25 শো টাকা হারে 1 লাখ 25 হাজার টাকা প্রতারণার মাধ্যমে পরস্পর যোগসাজশে ক্ষমতার অপব্যবহারপূর্বক উত্তোলন করিয়া উক্ত ঢেউটিন আত্মসাৎ করায় 2004 সালের ১৭(ক) ধারার আওতায় দন্ডবিধির 409/406/420/467/468 ও 471 ধারা তৎসহ হাজার 1947 সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের 5/2 ধারায় এবং নুরুল ইসলামের ছোট ভাই জামাল হোসেন ভাই এমপির প্রভাবিত হইয়া ক্ষমতার অপব্যবহার করিয়া প্রাপ্তি স্বীকারপত্রে রেজিস্ট্রি তে স্বাক্ষর জাল করাইয়া 23 বান্ডেল টিন মূল্য 57 হাজার 500 টাকা প্রতারণার মাধ্যমে আত্মসাৎ করায় 409 ধারা বাদে উক্ত সব ধারায় তাহার বিরুদ্ধেও চার্জ গঠন করা হয়। সরকারপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন দুদকের পিপি এডভোকেট আরিফুল হক টিটু। আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মজিবুর রহমান টোটন প্রমূখ।
বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার গোলবুনিয়া রায়হানপুর গ্রামের জনৈক মজিবুর রহমান পিতা মৃত আব্দুল মালেক বাদী হইয়া পাথরঘাটা আদালতে মামলা দায়ের করলে ওই মামলাটি 22 জুলাই 2007 আদালতের নির্দেশে পাথরঘাটা থানায় এজাহার হয়। পরবর্তীতে দুদকের সহকারী পরিচালক জনৈক এনায়েত হোসেন তদন্ত শেষে 3 আগস্ট 2008 আদালতে চার্জশিট দাখিল করলে 15 অক্টোবর 2018 পটুয়াখালী স্পেশাল জজ আদালতে স্থানান্তর হলে অদ্য চার্জ গঠন করা হয়।