দাউদকান্দি উপজেলা প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে ইউপি চেয়ারম্যানদের অভিযোগ

0
280


দাউদকান্দি থেকে লিটন সরকার বাদল:
কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদের মাসিক সমন্বয় সভা আজ দুপুরে উপজেলা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর (অব.) মোহাম্মদ আলী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম খান, সহকারী কমিশনার ভূমি সেলিম শেখসহ সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, সমন্বয় কমিটির সদস্য ও সুশীল সমাজের ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলো।

মিটিং চলাকালীন সময়ে একএক করে চেয়ারম্যানদের বক্তব্য উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার মো. আনোয়ারুল হককে লক্ষ্য করে বিভিন্ন অনিয়মের কথা তুলে ধরেন। তাঁরা বলেন, ইঞ্জনিয়ারের গাফলতিতে সরকারের উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে দাউদকান্দি উপজেলাবাসী। এই এক ধরনের উত্তেজনা সৃষ্টি হয় মিটিং চলাকালীন সময়ে।

ফাইল আটকিয়ে রাখা, সময়মতো অফিসে না বসা, কাজ চলাকালীন সময়ে পরিদর্শন না করে বিলম্ব করা, মাসিক মিটিংয়ের রেজুলেশন গুরুত্ব নাদেয়াসহ আরো অনেক অভিযোগ করেছে ওই প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে।

সমন্বয় কমিটির মিটিংয়ে গৌরীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবুল হাসেম সরকার তাঁর বক্তব্যে বলেন, ইঞ্জিনিয়ার সাহেব মনে করেন, উপজেলার যতটাকা আছে নিজের মনে করে। যার জন্যে নিজের মতো সবকিছু করছে। কারো কথা শোনছেনা।

গোয়ালমারী ইউপি চেয়ারম্যান নূরেআলম ভূইয়া বুলু বলেন, উপজেলা বিভিন্ন উন্নয়নের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আমরা চেয়ারম্যানরা, ঠিকাদার ও দলীয় নেতাকর্মীরাও করেছে। কিন্তু বিল দিচ্ছে না। এতে দাউদকান্দির উন্নয়ন ব্যাহত হচ্ছে। অনতিবিলম্বে তার প্রত্যাহার কামনা করছি।

ইলিয়টগঞ্জ উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান মো. জসীম প্রধান বলেন, আমার এলাকায় ১১ কোটি টাকার টেন্ডার হলেও ইঞ্জিনিয়ারের গাফলতির জন্য কাজ হচ্ছে না। ওনি কোন গুরুত্বই দেয় না।

সদর উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আব্দুছ ছালাম বলেন, একজন ইঞ্জিনিয়ারের উপর উপজেলার সকল উন্নয়ন নির্ভর করে। সে যদি সকলের সাথে সমন্বয় না করে তাহলে উন্নয়ন সম্ভব নয়। ইঞ্জিনিয়ার সেটাই করছে। সমন্বয় ঠিকমতো করছে না।

এবিষয়ে ইঞ্জিনিয়ার মো. আনোয়ারুল হকের মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।