তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন শক্তিশালী করার জন্য সুশীল সমাজের তাগিদ

0
70

৯ ডিসেম্বর ২০২৩:

বেসরকারি উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন অব দি রুরাল পুয়র-ডর্‌প শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর ২০২৩) যৌথভাবে টেলিভিশন রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (ট্রাব) এর সাথে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন শক্তিশালী করার প্রয়োজনীয়তা বিষয়ক একটি শেয়ারিং সেশনের আয়োজন করে।

জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট লেখক ও বাংলা একাডেমির চেয়ারপারসন জনাব সেলিনা হোসেন।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি জনাব মোঃ নিজামুল হক নাসিম।

বিদ্যমান তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনকে শক্তিশালী এবং ফ্রেমওয়ার্ক কনভেনশান অন টোব্যাকো কন্ট্রোল (এফসিটিসি)-এর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ করার লক্ষে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক উত্থাপিত প্রস্তাবনার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল-অধূমপায়ীদের সুরক্ষার জন্য সকল প্রকার পাবলিক প্লেস এবং পাবলিক পরিবহনে ধূমপানের জন্য নির্ধারিত স্থান বিলুপ্ত করা, তামাক পণ্যের প্রচার বন্ধ করার জন্য বিক্রয় কেন্দ্রে তামাক পণ্যের প্রদর্শন নিষিদ্ধ করা, তামাক কোম্পানির সামাজিক দায়বদ্ধতা কার্যক্রম নিষিদ্ধ করা, ই-সিগারেট বা ইমার্জিং হিটেড টোব্যাকো প্রডাক্ট আমদানি, উৎপাদন, ব্যবহার ও বাজারজাতকরণ নিষিদ্ধ করা, তামাক পণ্যের সকল প্রকার খুচরা ও খোলা বিক্রয় বন্ধ করা ও সচিত্র স্বাস্থ্য সতর্কবার্তার আকার ৫০% থেকে বাড়িয়ে ৯০% করা।

সেশনটিতে বাংলাদেশে তামাকের প্রাদুর্ভাব এবং জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি স্বরূপ তামাকপণ্যের নেতিবাচক প্রভাব সম্পর্কে বিশদ আলোচনা করেন জনাব রুবিনা ইসলাম, প্রোগ্রাম কোঅর্ডিনেটর, ডর্‌প।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত সুশীল সমাজের প্রতিনিধিবৃন্দ জনস্বার্থে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন শক্তিশালী করতে নীতিনির্ধারকদের তাগিদ দেন এবং এ বিষয়ে সর্বাত্মক সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

ডর্‌প বিগত ১৯৮৭ সাল থেকে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মসূচীর সাথে জড়িত এবং মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রবর্তনকারী সংস্থা হিসাবে সমধিক পরিচিত। এরই ধারাবাহিকতায় ডর্‌প বর্তমানে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন ও তামাক কর বৃদ্ধি বিষয়ে কাজ করছে এবং সরকারের টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জনে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।