গোপালগঞ্জে অসহায়দের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পৌঁছে দিলেন জেলা প্রশাসক

0
351

গোপালগঞ্জ থেকে মিজানুর রহমান মানিক:

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে অসহায়, দুস্থ ও গরিব মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পৌঁছে দিলেন গোপালগঞ্জে প্রশাসক শাহিদা সুলতানা।

সোমবার বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, ঢাকা’র বাস্তবায়নে এবং গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসনের আয়োজনে গোপালগঞ্জ সদরে ৩৫০, কাশিয়ানীতে ১৫০ এবং মুকসুদপুর উপজেলায় ৪৪ পরিবারের মাঝে পরিবার পরিচিতি কার্ডের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঈদ উপহার হিসেবে চাল, ডাল, তেল, সেমাই, চিনি ও দুধ পভৃতি সামগ্রী পৌঁছে দেন জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা।

এছাড়াও কাশিয়ানী উপজেলাধীন কাশিয়ানী সদর ইউনিয়নের ১,২৯০ জনকে, মুকসুদপুর পৌরসভার ৩,০৮১ জনকে ভিজিএফ সহায়তা বাবদ নগদ ৪৫০ টাকা করে এবং মুকসুদপুর উপজেলাধীন গোবিন্দপুর ইউনিয়নের দাসেরহাটের ১৫ জনকে শিশু খাদ্য বিতরন করা হয়।

এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ ইলিয়াছুর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রাশেদুর রহমান, কাশিয়ানী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সুব্রত ঠাকুর, মুকসুদপুর পৌরসভা মেয়র মোঃ আতিকুর রহমান মিয়া, মুকসুদপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ কাবির মিয়া, কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী অফিসার রথীন্দ্রনাথ রায়, মুকসুদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জোবায়ের রহমান রাশেদ, জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আব্দুর রহমান, তিন উপজেলার তিন সহকারী কমিশনার (ভূমি), তিন প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সহ তিন উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়রাম্যান, মেম্বারগণ উপস্থিত ছিলেন।

মুকসুদপুর উপজেলার খান্দারপাড় ইউনিয়নের বেজড়া আশ্রয়ন প্রকল্পের বাসিন্দা নাজমা প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পেয়ে তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, “২/৩ দিন পরেই ঈদ, বাজার করা হয়নি, চিন্তায় ছিলাম, এগুলো পেয়ে এখন খুব খুশি আমি।”

জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা উপকারভোগীদের উদ্দেশ্য বলেন, “কোভিড ১৯ মোকাবেলায় জনসচেতনতার বিকল্প নেই, তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার আপনাদের কাছে পৌঁছে দিতে পেরে আমরা খুশি, যেকোনো দুর্যোগ মোকাবেলায় সরকারি সকল প্রকারের সহযোগিতা নিয়ে আমরা আপনাদের পাশে থাকবো।”

তিনি আরো বলেন, “পার্শ্ববর্তী ভারতে করোনার ভয়াবহতা মিডিয়ার কল্যাণে আপনারা জানতে পারছেন, এজন্য আমাদেরকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে, মাস্ক ব্যবহার শতভাগ নিশ্চিত করতে হবে, বিনা কারনে বাইরে ঘোরাঘুরি করা যাবেনা।”