গোপালগঞ্জে ইভটিজিংয়ের অভিযোগে পল্লী বিদ্যুতের পিসিএম কে আটকে রেখেছে গ্রামবাসী

0
322

গোপালগঞ্জ থেকে মিজানুর রহমান মানিকঃ

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর থানাধীন জলিড়পাড় ইউনিয়নে টেকেরহাট পল্লী বিদ্যুতের পিয়ন কাম মেসেঞ্জার (পিসিএম) এর বিরুদ্ধে ইভটিজিংয়ের অভিযোগে তাকে আটকে রেখেছে গ্রামবাসী।

অভিযুক্ত পিসিএম চুন্নু মাতব্বর মাদারীপুর জেলার মোস্তফাপুর গ্রামের রজব আলীর ছেলে। সে টেকেরহাট পল্লী বিদ্যুত অফিসের অধীনে কর্মরত।

ভুক্তভুগী এক নারীর অভিযোগ, সোমবার চুন্নু বিদ্যুতের বিল রিডিং করতে এসে, ভুক্তভোগীকে কুপ্রস্তাব দেয় এবং বলে তার প্রস্তাবে রাজি হলে তাদের বিদ্যুতের বিল কম দেখানো হবে। ঘটনার পরেই, ভুক্তভোগী তার স্বামীকে ফোনে বিষয়টি জানান।

ভুক্তভোগীর স্বামী তাৎক্ষনিক বাড়িতে এসে তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে এবং গ্রামের মানুষের কাছে সোপর্দ করে।

এই ঘটনার পরে অন্যান্য অনেক নারীরাও বলেন এই চুন্নু মাতব্বর তাদেরকেও এভাবে কুপ্রস্তাব দিয়েছে। কিন্তু এতোদিন তারা বিষয়টি কারো কাছেই বলেননি।

একজন গ্রামবাসী অসিত গাইন বলেন, আজকের ঘটনার পরে অনেকেই চুন্নু মাতব্বরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে। সে এধরনের ঘটনা আরো কয়েকবার ঘটিয়েছে কিন্তু কেউ অভিযোগ করেননি।

তিনি আরো বলেন, এধরনের ঘটনাকে প্রশ্রয় দেয়া যায় না। আমরা থানায় অভিযোগ করার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

এদিকে বাবু বিশ্বাস নামে স্থানীয় এক ইলেকট্রিশিয়ান চুন্নু মাতব্বরকে বাঁচাতে নানান যুক্তি দেখিয়ে বলছেন এবারের মতন তাকে মাফ করে দিতে। কিন্তু উত্তেজিত স্থানীয় লোকজন অভিযুক্ত চুন্নু মাতব্বরেক ছেড়ে দিতে নারাজ।

টেকেরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম মোঃ সোহাগ হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন বিযয়টি উনি শুনেছেন, তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেবেন।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে, মুকসুদপুর থানার ইউএনও মো জোবায়ের রহমান রাশেদ বলেন, তিনি অভিযোগ পেলে দ্রুত ব্যবস্থা নেবেন।

বিভাস চন্দ্র সিকদার, সহকারী জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার চুন্নু মাতুব্বর এর ইভটিজিং এর বিষয়টির সত্যতা পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন।