গিরিশ গৈরিক’র কবিতা

0
130

আশ্রয়

 

সন্ধ্যা ঘনিয়ে এসেছে–এখনই সূর্য ডুবে যাবে
শান্ত নদীর তীরে শুভ্র মসজিদের গম্বুজে বসে আছে সাদা বক।
সে চোখ বুজে দেখছে–আবার একটি সূর্য নদীতে ডুবে যাচ্ছে
তারপর পৃথিবীর বাতাসে পবিত্র আযানের ধ্বনি–মাগরিব
আযান শুনেই সে উড়াল দিলো অন্য কোথাও শান্তির আশায়।

উড়তে উড়তে সে নদীর এপার এলো
নদীর এপারে প্রকাণ্ড মন্দির।
বকটি মন্দিরের চূড়ায় বসলো শান্তির আশায়
তারপর পৃথিবীর বাতাসে পবিত্র ঘণ্টার ধ্বনি–প্রার্থনা
প্রার্থনা শুনেই সে উড়াল দিলো অন্য কোথাও শান্তির আশায়।

এভাবে শুভ্র শান্ত সাদা বকটি
মসজিদ থেকে মন্দিরে, মন্দির থেকে প্যাগোডায়, প্যাগোডা থেকে গির্জায়
হৃদয়ে শান্তির প্রত্যাশায় আশ্রয় নিয়েছিল।

অবশেষে বকটি শান্তি খুঁজে পেয়েছিল নিজ নীড়ে।
ছানাদের কিচিরমিচির শব্দের ভেতর–আলো ও আঁধারের মিলনের ভেতর।

পৃথিবীতে এখন অন্ধকার নেমে এসেছে–প্রভাতের সূর্য উঠবে বলে।