করোনা রোগীর সংকটে পাশে দাঁড়ালেন উপজেলা চেয়ারম্যান

4
171

লিটন সরকার বাদল:

মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) দিবাগত রাত সাহরি খাওয়ার পরক্ষণেই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের মুঠোফোনে এক খুদে বার্তা পাঠায় তার বিশ্বস্ত সহচর উপজেলা আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সভাপতি মো.সোহেল রানাকে। খুদে বার্তাটি ছিলো এমন- “তুজারভাঙ্গা একজন সংকটাপন্ন করোনা আক্রান্তকারীর খবর পাওয়া গেছে তার জন্য দ্রুত চিকিৎসা ব্যবস্থা করো।”

সোহেল রানা বলেন, “আমি স্যারের পাঠানো খুদে বার্তার সাথে সাথেই আক্রান্তকারীর নিকটাত্মীয়ের সাথে মোবাইলে কথা বলে উপজেলা পরিষদ এর মানবিক চেয়ারম্যান মেজর মোহাম্মদ আলী(অব.) স্যারের পক্ষ থেকে চিকিৎসা সর্বাত্মক সহযোগীতার জন্য আশ্বস্ত ও ব্যবস্থা প্রতিশ্রুতি দেই।

সোহেল রানা বলেন, কল করার পর ওপাশ থেকে কেউ একজন কান্না জড়িত কন্ঠে বলতেছে ভাই আমার ভাতিজার শারীরিক অবস্থা অনেক খারাপ। দয়া করে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করুন।

তিনি আরও বলেন, আমি ৫ মিনিটের মধ্যেই তুজারভাংঙ্গা শুভ সড়ক সংলগ্ন এলাকায় রোগীর বাসায় পৌঁছে দেখি আমার আগেই উপজেলা চেয়ারম্যান মহোদয় করোনা রোগীর বাসায় হাজির হয়ে করোনায় আক্রান্তকারীর সুচিকিৎসকার ব্যবস্থা করছেন।

প্রজন্মলীগ সভাপতি বলেন, করোনা আক্রান্ত রোগীর শারীরিক অবস্থা অনেক খারাপ ছিলো, অক্সিজেন ঘাটতির কারণে অক্সিজেন লেভেল নেমে যায়। কিছুতেই ঠিক মতো শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে পারছিলো না ২৫ বছরের যুবক।দেরি না করে চেয়ারম্যান মহোদয় এর গাড়ি দিয়েই রোগীকে নিয়ে যাই গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার সাথে সাথেই অক্সিজেন দেওয়ার পরে রোগী স্বস্তি পায় এবং বর্তমানে আক্রান্তকারীর অবস্থা স্থিতিশীল আছে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ এর ভাইস-চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম নয়ন, গৌরীপুর বাজার কমিটির সেক্রেটারি রোমান সরকার, উপজেলা ছাত্রলীগ এর সাধারণ সম্পাদক নাজিরউদ্দিন ও পৌর ছাএলীগ নেতা এনামুল প্রধান।