আখাউড়ায় শিশু ও কিশোরী ধর্ষণের শিকার

0
267

জুটন বনিক, আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) থেকে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় কিশোরী ধর্ষণ ও শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে ও শিশু ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনায় মামলা নেয়ার প্রস্তুতি চলছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। শিশুটি আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার ষোললৌহঘর গ্রামের এক কিশোরী শুক্রবার রাতে মায়ের সঙ্গে অভিমান  করে পাশের গ্রামের খালার বাড়িতে যাওয়ার পথে খলাপাড়া গ্রামের জিয়ার হোসেন (৩৫) ও তার সহযোগি ইব্রাহিম হোসেন অপু একটি কালভার্টের উপর নিয়ে ধর্ষণ করে। শনিবার রাতে ওই কিশোরী পরিবারের লোকজন নিয়ে এসে থানায় এ বিষয়ে অভিযোগ করে। কিশোরীর বাবার দায়ের করা মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ অভিযুক্ত ইব্রাহিমকে রাতেই গ্রেপ্তার করেন।

এদিকে ধর্ষণ চেষ্টার শিকার আখাউড়া পৌর এলাকার কলেজপাড়ার ওই শিশুর নানী গত রবিবার দুপুরে জানান, ‘ঘটনার পরদিন গোসল করানোর সময় আমার নাতিনের কাপড়ে রক্ত দেখতে পায় তার মা। তখন আমার নাতনি জানায়, পাশের বাড়ির তোফায়েল নামে এক ব্যক্তি তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। চিৎকার শুরু করলে দা দিয়ে কেটে ফেলার ভয় দেখায়। সেই ভয়েই বাড়িতেই এসে সে ঘটনা বলে নি। আজ (রবিবার) দুপুরে তাকে আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসি। সেখান থেকে আমাদেরকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নিয়ে আসতে বলা হয়।’

আখাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. রসুল আহমেদ নিজামী এ প্রসঙ্গে বিকেলে বলেন, ‘কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষনিকভাবে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। শিশুটির বিষয়ে মামলা নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।