অপহরনের ৩ মাস পর টেক্সটাইলে মিলে কর্মরত অবস্থায় উদ্ধার হলো সিরাজগঞ্জের অপহৃত যুবক

0
109

টি এম কামাল : সিরাজগঞ্জ থেকে তিনমাস পূর্বে অপহরণ হওয়া আতিকুল ইসলাম ওরফে আতিক (২৩) নামে এক যুবককে একটি টেক্টটাইল মিলে কর্মরত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (২১ এপ্রিল) নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার ভুলতা এলাকায় অভিযান চালিয়ে একটি টেক্সটাইল মিল থেকে তাকে উদ্ধার করেছে সিরাজগঞ্জ পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। এদিকে কথিত ওই অপহরণ মামলায় এখনো হাজতবাস করছেন মো. সোহাগ নামে একজন ব্যবসায়ী। বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) নিজ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান, পিবিআই সিরাজগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম। উদ্ধার হওয়া ভিকটিম আতিকুল ইসলাম ওরফে আতিক সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার শিয়ালকোল ইউনিয়নের ধুকুরিয়া দক্ষিণপাড়া গ্রামের মো. নেজাব আলীর ছেলে। এ মামলায় জেলহাজতে থাকা মো. সোহাগ শহরের জানপুর মহল্লার মৃত হায়দার আলীর ছেলে। তিনি লিলি মার্কেটিং কোম্পানী নামে একটি প্রতিষ্ঠানের মালিক।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে পিবিআই’র পুলিশ সুপার রেজাউল করিম বলেন, ৮/৯ মাস আগে আতিকুল ইসলাম লিলি মার্কেটিং কোম্পানীর মার্কেটিং অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি কোম্পানীর বিভিন্ন পণ্য সিরাজগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় বাজারজাত করেছেন। ৩/৪ মাস চাকরী করার পর কোম্পানীর টাকা আত্মসাত করে জান্নাতুল মার্কেটিং নামে নিজেই একটি প্রতিষ্ঠান খোলেন। ওই কোম্পানীর মাধ্যমে লিলি মার্কেটিংয়ের পণ্য নকল করে জান্নাতুল মার্কেটিং পণ্য হিসেবে বাজারজাত করেন। বিষয়টি মো. সোহাগ জানতে পেরে তাকে নকল পণ্য তৈরি করতে নিষেধ করেন। কিন্তু কোন কিছু না শুনে গোপনে নকল পণ্য বাজারজাত করে আসছিলেন আতিকুল।
এদিক লিলি মার্কেটিংয়ের আত্মসাত করা টাকা ফেরত চান মো. সোহাগ। এসব বিষয়ে নিয়ে উভয়ের মধ্যে মনমালিন্য হয়। এ অবস্থায় হঠাৎ নিজে আত্মগোপনে চলে যান আতিকুল। গত ২০ জানুয়ারী তার বাবা মো. নেজাব আলী বাদী হয়ে মো. সোহাগকে একমাত্র আসামী করে সদর থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেন। মামলার পর গত ২৫ জানুয়ারি মো. সোহাগকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠায় পুলিশ।

এদিকে এই অপহরণ মামলাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা দাবী করে পিবিআইয়ের শরণাপন্ন হয় আসামী সোহাগের পরিবার। পিবিআই ছায়া তদন্ত শুরু করে। প্রযুক্তি ও গোয়েন্দা তথ্য ব্যবহার করে বুধবার (২১ এপ্রিল) নারায়নগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ উপজেলার ভূলতা এলাকার একটি টেক্সটাইল মিলে কর্মরত অবস্থায় ভিকটিম আতিকুল ইসলাম ওরফে আতিককে উদ্ধার করে পিবিআই। #