অগ্নিকান্ডে ৫২ জনের প্রাণহানি : সজীব গ্রুপের চেয়ারম্যানসহ আট শীর্ষ কর্মকর্তা গ্রেফতার

0
134

রুপগঞ্জে জুস ফেক্টরীতে অগ্নিকান্ডে ৫২ জনের প্রাণহানির ঘটনায় দায়ের করা মামলায় সজীব গ্রুপের চেয়ারম্যানসহ আট শীর্ষ কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ জায়েদুল আলম এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে- সজীব গ্রুপের চেয়ারম্যান ও এমডি আবুল হাসেম, আবুল হাসেমের চার ছেলে ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর হাসিব বিন হাসেম (সজিব), ডিরেক্টর তারেক ইব্রাহীম (সতেজ), ডিরেক্টর তাওসিফ ইব্রাহীম (শীতল), ডিরেক্টর তানজিম ইব্রাহীম, কোম্পানীর সিও শাহান শাহ আজাদ, জিএম মামুনুর রশিদ ও এডমিন প্রধান সালাউদ্দিন।

এসপি বলেন, অগ্নিকান্ডে ৫২ জন শ্রমিক নিহতের ঘটনায় রুপগঞ্জ থানায় পুলিশ বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। মামলায় ফায়ার সেফটি না থাকা, ভবন নির্মাণের ত্রুটি, ভবনে উঠানামার জন্য সিড়ি কম থাকা, চারতলার কলাপসিবল গেট ঘটনার সময় আটকে রাখাসহ বেশ কয়েকটি অভিযোগ আনা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, এর মধ্যে ফায়ার সার্ভিস বলেছে ভবন নির্মাণের ত্রুটি, সেফটি স্বল্পতা, সিড়ি না থাকা এবং কারখানায় শ্রমিকদের কাজের জায়গা, পণ্য মজুদ ও রাসায়নিক দ্রব্যের মজুদ একই ফ্লোরে রাখার কারনে প্রতিটি ফ্লোরে আগুন ভয়াবহ আকার ধারন করেছে। এজন্য মানুষের মৃত্যু ও ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

পুলিশ সুপার বলেন, আমাদের কাছে মনে হয়েছে এটি মালিক পক্ষের ইচ্ছাকৃত গাফিলতি এ কারনে মামলা দায়েরের পর তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রুপগঞ্জ থানায় তাদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

এছাড়া জেলা প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিসসহ তিনটি তদন্ত কমিটি হয়েছে। এ কমিটিগুলি যেসব সুপারিশ দিবে তা আমলে নিয়ে পুলিশ তদন্ত করে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহন করবে। প্রয়োজন হলে আরো একাধিক মামলা হবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৫টায় রুপগঞ্জ উপজেলার কর্ণগোপ এলাকায় অবস্থিত সেজান জুস ফ্যাক্টরিতে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।এই অগ্নিকান্ডে ৫২ জন নিহত ও আহত হয় অর্ধশতাধিক। -বাসস